মোট দেখেছে : 75
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

নয় জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায়, নিহত ৩৪

ঈদ আনন্দ শেষে গন্তব্যে ফেরার সময় সারা দেশের নয় জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৪ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক।

শনিবার ভোর ও শুক্রবার দিবাগত রাতে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে যাত্রীবাহী বাস উল্টে ১৬ জন এবং রংপুরের তারাগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া ঢাকার সাভারে একজন, নাটোরে দুজন, গোপালগঞ্জে দুজন, চুয়াডাঙ্গায় একজন, সিরাজগঞ্জে দুজন, ফরিদপুরে দুজন ও লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে দুজন নিহত হয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিক নিহতদের সবার নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

গাইবান্ধা : ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় ঢাকা থেকে সৈয়দপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ১৬ যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন।

পলাশবাড়ী থানার ওসি মাহমুদুল আলম জানান, ভোরে পলাশবাড়ীর মহেশপুর এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে ১৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

রংপুর : রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় শুক্রবার দিবাগত রাতে বালুবোঝাই ট্রাক ও বাস সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত পাঁচজন।

তারাগঞ্জ থানার ওসি আবদুল বাকি জানান, দিনাজপুর থেকে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী একটি বিআরটিসির দ্বিতল বাসের চাকা নষ্ট হলে শলেয়াশাহ বাজার এলাকায় দাঁড়িয়ে মেরামতের কাজ করছিল। এ সময় পেছন থেকে একটি বালুবোঝাই ট্রাক ধাক্কা দেয় বাসটিকে। এতে ঘটনাস্থলে ছয় বাসযাত্রী নিহত হন। এতে আহত হয়েছেন পাঁচজন। আহতদের স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি আবদুল বাকি।

নাটোর : নাটোরে ট্রাকচাপায় দুই অটোরিকশা আরোহী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুজন। শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার আলাইপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- নলডাঙ্গা উপজেলার পূর্ব সোনাপাতিল এলাকার সুদিস্মা দেবনাথ ও তার প্রতিবেশী কানাই চন্দ্র।

নাটোর সদর থানার এসআই রুবেল হোসেন জানান, সকালে মঙ্গল দেবনাথ তার স্ত্রী ও মেয়েকে হরিশপুরের মিশন হাসপাতালে দেখতে প্রতিবেশী কানাইকে নিয়ে স্টেশনবাজারে আসেন। সেখান থেকে হরিশপুরের মিশন হাসপাতালে যাওয়ার পথে আলাইপুর এলাকায় পৌঁছলে অটোরিকশাকে পেছন থেকে বালুবোঝাই একটি ট্রাক ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজন নিহত ও দুজন আহত হন। ফায়ার সার্ভিস আহতদের উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

গোপালগঞ্জ : জেলায় সড়ক দুর্ঘটনা দুজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১০ জন। শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানান, টুঙ্গিপাড়া থেকে ছেড়ে আসা গোপালগঞ্জগামী একটি লোকালবাস ঘোনাপাড়া মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা রিকশা, ভ্যান, থ্রিহুইলারকে ধাক্কা দিয়ে ট্রাফিক আইল্যান্ডে গিয়ে সজোরে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই বাসচাপায় দুজন নিহত হন এবং আহত হন অন্তত ১০ জন। আহতদের গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঢাকার সাভার : সাভারে বাস ও ট্রাকের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন একজন। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ২৩ জন। শনিবার সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের আমিনবাজারের তুরাগ এলাকায় এ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার আমিনবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জামাল জানান, রংপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা দ্রুতি পরিবহনের একটি বাস সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের আমিনবাজারের তুরাগ এলাকায় পৌঁছায়।

মহাসড়কে ইউটার্ন নেয়া একটি ট্রাকের পেছনে সজোরে ধাক্কা লেগে বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলেই একজন বাসযাত্রী নিহত হন। আহত হন অন্তত ২৩ জন। পরে স্থানীয়রা আহতদের দ্রুত উদ্ধার করে রাজধানীর ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলায় বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক ও তার সহকারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২০ যাত্রী। শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার বগুড়া-নগরবাড়ী সড়কের ভুঁইয়াগাতী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- রায়গঞ্জ উপজেলার শ্যামনাই গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে ট্রাকচালক শরিফ ফকির (৩৫) এবং একই গ্রামের ধুকু মিয়ার ছেলে চালকের সহকারী রফিকুল ইসলাম (৩০)।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি আব্দুর কাদির জিলানী জানান, আরকে পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটি বগুড়া থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। ভুঁইয়াগাতী এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে বাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ট্রাকচালক ও তার সহকারী নিহত হন।

চুয়াডাঙ্গা : সদর উপজেলার আলোকদিয়া বাজারে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় এক ধানকল মালিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুই মোটরসাইকেল আরোহী। নিহত ধানকল মালিক ওবায়দুর রহমান (৪৫) আলোকদিয়া চকপাড়ার মরহুম ইরফান আলীর ছেলে।

চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপপরিচালক আব্দুস সালাম বলেন, ধানকল মালিক ওবায়দুর চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়ক ধরে হেঁটে আলোকদিয়া বিশ্বাস তেল পাম্পের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় চুয়াডাঙ্গা থেকে মেহেরপুরগামী একটি মোটরসাইকেল ওবায়দুরকে খুব জোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। আহতদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। আহতদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন বলেন, এ দুর্ঘটনার বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন। মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে।

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) : লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে সিএনজি চালিত অটোরিকসার সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে নারীসহ দুজন নিহত হয়েছেন। শনিবার বেলা ১১টার দিকে আলেকজান্ডার-সোনাপুর সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মিলন ও হাজেরা বেগম। তাৎক্ষণিক তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি। রামগতি থানার ওসি আরিছুল হক মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফরিদপুর : ফরিদপুরে বাস খাদে পড়ে বাসের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৫ জন। শনিবার সকালে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার পূর্ব সদরদী নামকস্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিক নিহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ওসি মাহাফুজার রহমান জানান, বরিশাল থেকে রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে আসার তুহিন পরিবহনের একটি বাসের সামনের চাকা ফেটে গেলে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে বাসের চালক ও সহকারী নিহত হয়। এ ঘটনায় আহতদের ভাঙ্গা ও ফরিদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।